চৌকাঠ ব্লগ

নতুন জেনারেশন এর ব্লগ

ভিপিএস হোস্টিং কি? কেন এটি প্রয়োজন?

/
/
/
647 Views

ভিপিএস (VPS) এর পূর্ণরুপ: Virtual Private Network. একটি ডেডিকেটেড সার্ভার থেকে হাইপারভাজার এর মাধ্যমে ছোট ছোট ভার্চুয়াল সার্ভার তৈরি করে তা হোস্টিং এর ক্ষেত্রে ব্যাবহার করা যায়। প্রতিটি ভিপিএস এর নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম, স্টোরেজ, প্রসেসর ও র‌্যাম থাকে যদিও তা মূল ডেডিকেটেড সার্ভার এরই অংশ। একটি ডেডিকেটেড সার্ভার থেকে সার্ভিস প্রোভাইডারগন অনেকগুলো ভিপিএস তৈরি করে তা ব্যাবহারকারিদের কাছে বিক্রি করতে পারেন। ছোট থেকে মাঝারি ব্যাবসার ক্ষেত্রে শেয়ার্ড হোস্টিং এর চেয়ে ভিপিএস হোস্টিং একটি সুন্দর সমাধান হতে পারে। ভিপিএস সার্ভার এ চাইলে একটি বা একাধিক ওয়েবসাইট হোস্টিং করা যায়। শেয়ার্ড হোস্টিং এর ক্ষেত্রে ওয়েবসাইট চালানোর জন্য যে সমস্ত সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়, ভিপিএস হোস্টিং এর ক্ষেত্রে সে সকল সমস্যা অনেকটাই কমে যায়। একটি ডেডিকেটেড সার্ভারে থাকা ভিপিএস সার্ভার একই মেশিনে থাকলেও তারা একটির থেকে অপরটি স্বাধীন ভাবে পরিচালিত হয়। তাই এক সার্ভারের কোনো ভিপিএস কোনো ম্যালওয়্যার বা অন্য কোনো আক্রমণের শিকার হলে তা সাধারনত তার সাথে থাকা অন্য ভিপিএস সমস্যা সৃষ্টি করে না।

ভিপিএস হোস্টিং এর কারনে হোস্টিং এ নিয়ন্ত্রণ ও প্রয়োজনীয় কাস্টমাইজেশন করা সম্ভব

ভিপিএস হোস্টিং এর ক্ষেত্রে ব্যাবহারকারি তার ভিপিএসকে পুরোপুরি তার নিজের প্রয়োজনমতো ব্যাবহার করতে পারেন। শেয়ার্ড হোস্টিং এ তেমন কোনো নিয়ন্ত্রণের সুযোগ থাকে না। VPS সার্ভার এ অনেকটা ডেডিকেটেড সার্ভার এর মতো নির্ভরযোগ্যতা ও নিয়ন্ত্রন পাওয়ার পাশাপাশি শেয়ার্ড হোস্টিং এর মত সাশ্রয় এর সুযোগ রয়েছে। ব্যাবহারকারি চাইলে ভিপিএস এ তার নিজের ওয়েবসাইট ম্যানেজ করার জন্য কন্ট্রেল প্যানেল এমনকি cPanel ইন্সটল করে নিয়ে তার পুরো সুবিধা গুলো ব্যাবহার করতে পারবেন।

ওয়েবসাইট এর গতি বৃদ্ধি করতে ভিপিএস হোস্টিং

একটি ডেডিকেটেড সার্ভারে নির্দিষ্ট ও অল্প সংক্ষ্যক ভিপিএস সার্ভার থাকায় সেখানে রিসোর্স স্বল্পতা দেখা যায় না। তাই ভিপিএস সার্ভার এ কোনো ওয়েবসাইট হোস্ট করলে তা শেয়ার্ড হোস্টিং এর চেয়ে অনেক ভালো গতি ও পারফরমেন্স দেবে, কেননা শেয়ার্ড হোস্টিং এর ক্ষেত্রে একটি সার্ভারে অনেকগুলো ওয়েবসাইট থাকায় সেসব ওয়েবসাইটে রিসোর্স বেশি ব্যাবহার হলে তা অন্য ওয়েবসাইট গুলোতেও প্রভাব ফেলে এবং ওয়েবসাইট স্লো করে দেয়। তাই সে দিক থেকে ভিপিএস হোস্টিং অনেক বেশি কার্যকর।

ভিপিএস এ নিরাপত্তা বেশি

ভিপিএস সার্ভার এর নিরাপত্তা শেয়ার্ড হোস্টিং এর চেয়ে অনেক বেশি হয়ে থাকে। শেয়ার্ড হোস্টিং এর ক্ষেত্রে একটি ওয়েবসাইট হ্যাকিং এর শিকার হলে ওই হোস্টিং এর অন্য ব্যাবহারকরিদেরও নিরাপত্তার ঝূঁকি দেখা যেতে পারে। কিন্তু ভিপিএস হোস্টিং এর ক্ষেত্রে ভিপিএস গুলো একটির থেকে অপরটি পুরোপুরি স্বাধিনভাবে পরিচালিত হয় বলে তেমন নিরাপত্তা ঝূঁকি দেখা যায় না। আবার ভিপিএস এর মূল ডেডিকেটেড সার্ভার এর নিরাপত্তার দায়িত্ব এর সার্ভিস প্রোভাইডার এর হওয়ায় সেখানেও প্রফেশনাল সিকিউরিটি পাওয়া সম্ভব।

ভিপিএস সার্ভার এ দ্রুত বৃদ্ধি সম্ভব

ভিপিএস সার্ভার এ নিজস্ব রিসোর্স ও অনেকটা নিজের প্রসেসিং পাওয়ার থাকায় একটি ভিপিএস সার্ভার এ শেয়ার্ড হোস্টিং এর চেয়ে অনেক বেশি ভিজিটর নেওয়া সম্ভব। খুব কম খরচেই অনেক বেশি রিসোর্স পাওয়া যায়। তাই ব্যাবহায়িক বৃদ্ধিতে শেয়ার্ড হোস্টিং এর চেয়ে ভিপিএস হোস্টিং অনেক ফ্লেক্সিবল। ভিপিএস সার্ভার এ একই জায়গায় অনেক অনেক ওয়েবসাইট না থাকায় সেই ওয়েবসাইট/ওয়েবসাইটগুলোর জন্য অনেক বেশি রিসোর্স পাওয়া যায়। তাই ভিজিটর হটাৎ বৃদ্ধি পেলেও তা সামাল দেওয়া যায়।

ব্যাবসায়িক ওয়েবসাইট ও ব্যাক্তিগত বিভিন্ন ক্ষেত্রেই ভিপিএস হোস্টিং অনেক স্বাশ্রয়ী একটি সমাধান। অনেক খরচ করে ডেডিকেটেড হোস্টিং এর পরিবর্তে ভিপিএসএই প্রায় সব সুবিধা পাওয়া যায়। এ সম্পর্কে আপনার কোনো প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে জানাতে পারেন, আমি যত দ্রুত সম্ভব উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবো।

  • Facebook
  • Twitter
  • Google+
  • Linkedin
  • Pinterest

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This div height required for enabling the sticky sidebar